1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
ফুলবাড়ীর ২১ প্রাথমিকে প্রধানের পদ শূণ্য, পাঠদান ব্যাহত - বাংলা টাইমস
বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৩:৪৯ অপরাহ্ন

ফুলবাড়ীর ২১ প্রাথমিকে প্রধানের পদ শূণ্য, পাঠদান ব্যাহত

আজিজুল হক সরকার, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর)
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ২২ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৬৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় প্রধান শিক্ষক নেই ২১টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ৬১টি পদ শূন্য রয়েছে সহকারী শিক্ষকের। সরাসরি নিয়োগ না থাকায় পদগুলো দীর্ঘদিন ধরে শ‚ন্য হয়ে আছে। এসব বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষকরা (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালনের পাশাপাশি স্কুল পরিচালনা করছেন। সে ক্ষেত্রে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ কাজ এবং পাঠদান করাতে অনেকটাই ব্যাহত হচ্ছে বলে জানা যায়।

 

উপজেলার শিক্ষা অফিসারের কার্যালয় স‚ত্রে জানা যায়, ফুলবাড়ী উপজেলার ৭টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা রয়েছে । এর মধ্যে মূল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ১টি শিশুকল্যাণসহ ৪৮টি এবং নব্য সরকারি (রেজি.প্রাথমিক বিদ্যালয়) প্রাথমিক বিদ্যালয় ৬২টি। মোট ১০৯ টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় আছে। তবে প্রধান শিক্ষক নেই ২১টি বিদ্যালয়ে। আর সহকারী শিক্ষকের পদ শ‚ন্য রয়েছে ৬১টি। এসব বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্বে রয়েছেন।

শিক্ষক সংকটের বিষয়ে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঙ্গে যোগাযোগ করে শোনা যায়, সহকারী শিক্ষক না থাকলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককেও দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি অনেক ক্লাস নিতে হয় তাঁদের। আবার প্রধান শিক্ষক না থাকলে সহকারী শিক্ষক প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করেন। ফলে পাঠদান নানা কারণে ব্যাহত হওয়ায় শিক্ষার্থী সংখ্যাও কমে যাচ্ছে সংশ্লিষ্ট স্কুলগুলোতে।

তারা আরও জানান, প্রধান শিক্ষকের দাফতরিক যে কাজগুলো রয়েছে সে কাজগুলো এখন আমাদের অনেক বেশি চাপ সৃষ্টি করছে৷ এতে দাপ্তরিক কাজ করতে গিয়ে ক্লাস করাতে পারেন না ঠিকমতো। তাঁরা বলেন, শিক্ষক সংকটের কারণে বিদ্যালয়গুলোতে পাঠদান কার্যক্রম অনেকটা ব্যাহত হচ্ছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে খুদে শিক্ষার্থীরা। বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক শ‚ন্যতার কারণে প্রশাসনিক কার্যক্রমও কিছুটা ব্যাহত হচ্ছে বলে জানা যায়।

উপজেলার পুখুরী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক কাজল রেখার সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, আমাদের স্কুলে প্রধান শিক্ষক সহ ৬টি শিক্ষকের অনুমোদিত পদ রয়েছে।তার মধ্যে ১জন প্রধান শিক্ষকসহ ২জন সহকারী শিক্ষকের পদ শূন্য রয়েছে।আমি ভারপ্রাপ্ত হিসেবে ২০১৯ সাল থেকে অদ্যাবধি আছি। দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি আমাকেও সম্পূর্ণ পাঠদান কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হচ্ছে। এ বিষয়ে আরও প্রশ্ন করলে তিনি জানান,আমার স্কুলে শিক্ষার্থী সংখ্যা ১৩০। ৩ জন শিক্ষক মিলে পাঠদান করাতে হিমশিম খেয়ে যাচ্ছি আমরা। যদি শূন্য পদগুলোতে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়া হয় তাহলে এসব সমস্যা কেটে যাবে।

চৌরাইট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) প্রধান শিক্ষক আল হক মো.নূরতাজ উল্লাহ’র সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি ২০২১ সালের ১৪জুন থেকে বিদ্যালয়টিতে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করে আসছি। এ ছাড়াও বিদ্যালয়ে একজন সহকারী শিক্ষকের পদও শ‚ন্য রয়েছে। আমার স্কুলে ২০০ শিক্ষার্থী আছে। নতুন শিক্ষাবর্ষে ১৬০ জন ইতোমধ্যে ভর্তি হয়েছে। দাপ্তরিক কাজের পাশাপাশি প্রতিদিন আমাকে ক্লাস নিতে হচ্ছে। এতে আমি এতই হিমশিম খাচ্ছি যে, ঠিকমতো ক্লাস নেব নাকি দাফতরিক কাজগুলো করব। তিনি আরো বলেন, এদিকে আমি যদি ক্লাস ঠিকমতো নিতে যাই তাহলে দাফতরিক কাজগুলো করা হয় না। আবার যদি দাফতরিক কাজ করতে যাই তাহলে আবার ক্লাস ঠিকমতো নিতে পারি না। বিদ্যালয়ে সরকারি নিয়োগ দিলে এই সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে।

এসব বিষয় নিয়ে উপজেলার স্থানীয় কলেজ শিক্ষক মিজানুর রহমান,শচিন দত্ত,ব্যবসায়ী আমজাদ হোসেন বলেন,বর্তমানে সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকের কাজের চাপ বেশি।স্কুলে যদি প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক পদ দীর্ঘদিন শূন্য থাকে তাহলে পাঠদান ব্যাহত হবেই।আমরাও শুনেছি শিক্ষক সংকট রয়েছে আমাদের অনেক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এ কারণে হয়তো ছাত্রছাত্রীদের পাঠদান অনেকটা ব্যাহত হচ্ছে। দ্রæত এ শ‚ন্য স্থানে সরকারি নিয়োগ দিলে হয়তো এই সমস্যা থেকে মুক্তি মিলবে।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোসাম্মৎ হাসিনা ভূইয়া বাংলা টাইমসকে বলেন, শিক্ষকদের অবসর,এলপিআর(অবসর প্রস্তুতিমূলক ছুটি) মাতৃত্বকালীণ নানা কারণে শিক্ষক সল্পতা হয়ে থাকে। ফুলবাড়ী উপজেলায় ২১টি বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক ও ৬১টি সহকারী শিক্ষক পদ শূন্য রয়েছে। বিষয়টি চিঠি দিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। চলতি মাসে নতুন শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার কথা রয়েছে। শিক্ষক নিয়োাগ হলে আশা করি তখন এই সংকট কেটে যাবে। পাঠদানে অনুকূল অবস্থায় ফিরে আসবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট