1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
দ্রোহের কবি রুদ্রের ৬৬তম জন্মদিন - বাংলা টাইমস
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:১৮ পূর্বাহ্ন

দ্রোহের কবি রুদ্রের ৬৬তম জন্মদিন

মনির হোসেন,মোংলা
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ৯৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ভালো আছি, ভালো ভালো থেকো, আকাশের ঠিকানায় চিঠি লিখো এমন অভিলাষী মনের কবি, দ্রোহ ও রোমান্টিক কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহর ৬৬ তম জন্মদিন আজ।

 

দিনটি উপলক্ষে কবির গ্রামের বাড়ি মোংলায় ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে। কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, রুদ্র স্মৃতি সংসদের পক্ষ থেকে ১৬ অক্টোবর রবিবার সকালে কবির সমাধিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ, দোয়া, কবিতা আবৃত্তি, কবির বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবন নিয়ে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এছাড়াও বিভিন্ন সাহিত্য ও সামাজিক সংগঠন রুদ্রের জন্মদিন উপলক্ষে আলাদা আলাদা কর্মসূচি পালন করছে।

সামরিক স্বৈরশাসক এরশাদ বিরোধী আন্দোলনে সাংস্কৃতিক লড়াইয়ের ময়দানে তিনি ছিলেন অন্যতম সদস্য। জাতীয় কবিতা পরিষদ গঠনে প্রধান উদ্যোগীদের একজন ছিলেন তিনি।

তার সময় এবং মৃত্যুর পরও তরুণদের অন্যতম প্রিয় কবি রুদ্র মুহম্মদ শহিদুল্লাহ সাতটি কাব্যগ্রন্থসহ গল্প, কাব্যনাট্য ও অর্ধ শতাধিক গান রচনা করেছেন। রাজনীতির নামে ভন্ডামী আর সমাজের অসামঞ্জস্য কবিতায় তুলে এনেছেন তিনি। ‘সোনালি শিশির’ তার একমাত্র গল্পের বই। তার ‘বিষ বিরিক্ষির বীজ’ নামে একটি নাট্যকাব্য আছে।

এছাড়া উপদ্রুত উপকূল (১৯৭৯), ফিরে পাই স্বর্ণগ্রাম ১৯৮২, মানুষের মানচিত্র (১৯৮৪), ছোবল (১৯৮৬), গল্প (১৯৮৭), দিয়েছিলে সকল আকাশ (১৯৮৮), মৌলিক মুখোশ (১৯৯০) কাব্যগ্রন্থগুলোও ব্যাপক পাঠকপ্রিয়তা পেয়েছে। তার বিখ্যাত ‘ভালো আছি ভালো থেকো’ গানটির জন্য বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি ১৯৯৭ সালে তাকে শ্রেষ্ঠ গীতিকারের (মরনোত্তর) সম্মাননা প্রদান করে।

১৯৫৬ সালের এইদিনে বরিশালের আমানতগঞ্জ রেডক্রস হাসপাতালে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। তার মূল বাড়ি বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলার অন্তর্গত সাহেবের মিঠাখালি গ্রামে। উচ্চ মধ্যবিত্ত পরিবারে জন্ম নেয়া রুদ্রের শৈশবের অধিকাংশ সময় কেটেছে নানাবাড়ি মিঠাখালি গ্রামে (বাগেরহাট জেলার মোংলা থানার অন্তর্গত)। এখানকার পাঠশালাতেই তার পড়াশুনা শুরু।

১৯৭২ সালে ঢাকায় এসে ওয়েস্ট এ্যান্ড হাইস্কুল ভর্তি হয়ে ১৯৭৪ সালে চার বিষয়ে লেটার মার্কসসহ এসএসসিতে বিজ্ঞান শাখায় প্রথম বিভাগে উত্তীর্ণ হন তিনি। এর পর ১৯৭৬ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে ভর্তি হন। অতঃপর ১৯৮০ সালে সম্মানসহ বিএ এবং ১৯৮৩ সালে এমএ পাস করেন তিনি। ১৯৯১ সালের ২১জুন মাত্র ৩৫ বছর বয়সে কবি না ফেরার দেশে চলে যান।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট