1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
শেষ মুহুর্তে বেড়েছে কেনাকাটা - বাংলা টাইমস
রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০২:১৫ অপরাহ্ন

শেষ মুহুর্তে বেড়েছে কেনাকাটা

নিজস্ব প্রতিবেদক 
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৫৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলার ২৬তম আসর। মেলার ২৫তম দিনে মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত দেখা যায়, দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভীর। সবচেয়ে বেশি ভীর দেখা গেছে ক্রেতা বিক্রেতার মাঝে নেচে নেচে আইসক্রিত বিক্রেতার স্টলে। সেখানেও মানা হয়নি কোনরূপগ স্বাস্থ্য বিধি।

 

এদিকে কভিড ১৯ পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকার ১১দফা স্বাস্থ্যগত বিধি জারীর পর মেলায় স্বাস্থ্যবিধি মানার পরিবেশ দেখা যায়নি। যদিও মেলা কর্তৃপক্ষ মাস্ক পড়াতে বাধ্য করতে কঠোর ভুমিকা নিয়ে মেলা প্রাঙ্গণে চালাচ্ছেন ভ্রাম্যমান আদালত।

মেলার ২৫ তম দিনে শনিবার সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, মেলার স্থায়ী প্যাভিলিয়ন ছাড়াও অস্থায়ী স্টলে বসেছে বিভিন্ন নামীয় কোম্পানীর উৎপাদিত পন্য। তবে মেলায় ক্রেতা আকর্ষণ বাড়াতে যুমনা, আরএফএল, ওয়ালটনসহ বিভিন্ন কোম্পানী ইতোমধ্যে বিশেষ ছাড় ঘোষণা করেছেন। অনেকে তাদের পন্য বিক্রি বাড়াতে হোম ডেলিভারী সার্ভিস ফ্রি ঘোষণা করায় আগের তুলনায় বিক্রি বেড়েছে বলে দাবী সংশ্লিষ্ট স্টল পরিচালকদের।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ডাক্তার নূর জাহান আরা খাতুন বাংলা টাইমসকে বলেন, মেলার অভ্যন্তরে আগত দর্শনার্থীদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তায় সাম্প্রতিক কভিড নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে একাধিক টীম। এদের মাঝে আমাদের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দায়িত্বরত প্রতিদিন একজন করে ডাক্তার, নার্স ও সহযোগী রয়েছেন।

মেলায় ঘুরতে আসা দাউদুপুরের আশিকুল ইসলাম খোকন বলেন, আন্তর্জাতিক মানের একটি আমাদের এলাকায় হচ্ছে। এখানে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে লোকজন কেনাকেটা করছেন। তবে গ্রামের লোকজন এবার এ বাণিজ্য মেলার সুবিধা ভোগ করেছে বেশি।

মেলায় ঘুরতে আসা শিমুলিয়া এলাকার বাসিন্দা সুরাইয়া আফরিন মুক্তি বলেন, বাহিরে যে বার্গার উন্নতমানের স্বত্তেও দাম মাত্র ৮০ থেকে ১৫০ টাকা। মেলায় সেটার দাম রাখা হচ্ছে ২শ থেকে ২৮০ টাকা। এভাবে মুল্য নিলে সাধারন দর্শনার্থীরা একদিনের বেশি মেলায় আসতে চাইবেন না। তবে অন্যন্য পন্যের বাজার মুল্যের চেয়ে ছাড় দেয়ায় সাংসারিক টুকিটাকি পন্য বিক্রি হচ্ছে বেশি।

মেলায় ঘুরতে আসা মধুখালীর বাসিন্দা জিন্নাত আলী বলেন, মেলার প্রথম দিকে একবার এসেছিলাম। সে সময় তেমন কোন অফার বা ডিসাকাউন্ড ছিলো না। আজ আবার এসে দেখলাম সব স্টলেই প্রায় বিশেষ ছাড় ঘোষণা করেছে। স্বাস্থ্যবিধি ভেঙ্গেই দর্শনার্থীরা তাদের প্রয়োজনীয় পন্য ক্রয় করছেন।

মেলার থাকা সেভয় নামীয় আইসক্রিম বিক্রেতার স্টলে দেখা গেছে ভীর। ওখানে নেচে নেচে আইসক্রিম বিক্রি করায় উৎসুক দর্শনার্থীরা ক্রেতা বিক্রেতার নাচ দেখতে ভীর করছেন। এ ভীর সামলামে মেলা কর্তৃপক্ষ ওই আইসক্রিম কোম্পানীকে সতর্ক করেছেন বলে জানিয়েছেন সেভয় সেলস কর্মকর্তা গোলাম ফারুক আজহার।

এসব বিষয়ে মুঠোফোনে কথা হলে মেলার পরিচালক ও রপ্তানী উন্নয়ন ব্যুরোর সচীব ইফতেখার আহমেদ চৌধূরী বাংলা টাইমসকে বলেন, মেলার আশার চেয়ে বেশি দর্শনার্থী হয়েছে। এতে মেলা সফল হচ্ছে। ক্রেতা বিক্রেতা উভয়েই খুশি। তবে স্বাস্থ্য বিধি মানাতে আমাদের সব রকম আয়োজন চলছে। তবু অসচেতন দর্শনার্থীরা ভীর করছেন। এতে কিছুই করার থাকে না।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট