1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
সিরাজগঞ্জে উৎসব মুখর পরিবেশে ১৭ ইউপিতে ভোট চলছে - বাংলা টাইমস
সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৩:৩১ অপরাহ্ন

সিরাজগঞ্জে উৎসব মুখর পরিবেশে ১৭ ইউপিতে ভোট চলছে

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ১১ নভেম্বর, ২০২১
  • ৪৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে উৎসব মুখর পরিবেশে সিরাজগঞ্জের ১৭টি ইউপিতে সুষ্ঠ ও শান্তিপুর্ণ ভাবে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) সকাল ৮ থেকে বিরতিহীন ভাবে বিকাল ৪ পর্যন্ত সদর উপজেলার ৮টি ও রায়গঞ্জ উপজেলার ৯টি ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ চলবে।

 

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, সদরের সয়দাবাদ, রতনকান্দি ও ছোনগাছা তিনটি এবং রায়গঞ্জের ধানগড়া, ধামাইনগর, বহ্মগাছা তিনটি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। সদরের ৮টির মধ্যে চারটিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনে ২৫ জন প্রার্থী প্রতিনদ্বিতা করছেন।

এছাড়াও সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে ২৩ জন বিনা প্রতিদ্বন্ধ্বিয় নির্বাচিত হওয়ার পর ৩৪৯ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ড সদস্য পদে ১৭ জন নির্বাচিত হওয়ার পরও ১০৬ জন প্রার্থী মাঠে রয়েছে। রায়গঞ্জের ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ২২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এছাড়াও সাধারণ ওয়ার্ড সদস্য পদে ৩৬২ এবং সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য পদে ১০৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

সিরাজগঞ্জ সদরের তিনটিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতরা হলেন-সয়দবাদ ইউনিয়নে নৌকার মনোনীত প্রার্থী নবীদুল ইসলাম, ছোনগাছা ইউনিয়নে মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ ও রতনকান্দি ইউনিয়নে আনোয়ার হোসেন। বাকি ৫টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী ও বিএনপি সমর্থিত ২৫ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদের মধ্যে বহুলী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মঞ্জুরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে থানা আওয়ামী লীগ সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য গাজী আব্দুল বারী তালুকদার, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমিন, বহুলী ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য ফরহাদ হোসেন সেখ ও বহুলী ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য সালেহ মাহমুদ মিয়াা বাবু প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বাগবাটী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম ও বিএনপি কর্মী মাহফুজুর রহমান খান ডেভিট প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

খোকশাবাড়ী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রাশিদুল হাসান রশিদ মোল্লা, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত প্রার্থী গোলাম হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে বিএনপি সমর্থিত রেজাউল করিম রোকনী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাবেক চেয়ারম্যান মনজুর রহমান বকুল মাঠে রয়েছেন।

শিয়ালকোল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সেলিম রেজা, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যকরী কমিটির সদস্য সাইফুল ইসলাম খান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী হাফেজ মো. হাবিবুল্লাহ, বিএনপি ইউনিয়ন কর্মী মো. এরশাদ রানা, বিএনপি কর্মী মঞ্জুরুল আলম সরকার, বিএনপি কর্মী জাহিদুল ইসলাম বাবু, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রার্থী আব্দুস সালাম ও স্বতন্ত্র প্রার্থী কায়সার আহমেদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

কালিয়া হরিপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আব্দুস সবুর, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ইউনিয়ন বিএনপির আহবায়ক আনিসুর রহমান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মুফতি আল-আমিন সিরাজী, স্বতন্ত্র প্রার্থী আরিফুর রহমান ও আব্দুল কাদের সরকার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

রায়গঞ্জ উপজেলার তিনটি ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হলো ধানগড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মীরওবায়দুল্লাহ, ধামাইনগর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রাইসুল হাসান ও ব্রহ্মগাছা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী গোলাম সরোয়ার লিটন। বাকি ৬টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ ও আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী ও বিএনপি সমর্থিত ২২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদের মধ্যে ঘুড়কা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. জিল্লুর রহমান তালুকদার, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সলঙ্গা থানা বিএনপির আহক্ষায়ক কমিটির সদস্য আবু তালেব খান ও ঘুড়কা ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহক্ষায়ক নাজমুল হুদা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

ধুবিল ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত মিজানুর রহমান রাসেল, বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে ধুবিল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম ও সলঙ্গা থানা কৃষকলীগের দপ্তর সম্পাদক সাইফুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা আব্দুল করিম রেজা, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সলঙ্গা থানা বিএনপির সদস্য সচিব হাসান ইমাম তালুকদারভ তালুকদার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নলকা ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আবু বকর সিদ্দিক, বিদ্রোহী প্রার্থী নলকা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল হোসেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নলকা ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল গফুর, নলকা ইউনিয়ন বিএনপির যুগ্ম আহক্ষায়ক রুহুল আমিন, সাবেক বিএনপি নেতা আব্দুল জবক্ষার সরকার ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত শফিকুল ইসলাম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

পাঙ্গাসী ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী রফিকুল ইসলাম নান্নু, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী হিসেবে আওয়ামী লীগের কর্মী আলী আকবর সরকার, স্বতন্ত্র প্রার্থী প্রবাসী সালাহ উদ্দিন সেখ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী ছাইদুল ইসলাম প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সোনাখাড়া ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত আবু হেনা মোস্তফা রিপন ও বিদ্রোহী হিসেবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আমজাদ হোসেন সানা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

চান্দাইকোনা ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত আব্দুল হান্নান খান ও বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে চান্দাইকোনা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আজমল আকন্দ। এছাড়াও আগামী ২৮ নভেম্বর তৃতীয় ধাপে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ও বেলকুচিতে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট