1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৫৭ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
...Welcome To Our Website...

রৌমারীতে এইচএসসি পরীক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১ অক্টোবর, ২০২১
  • ৪৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলায় শিরিনা আক্তার (১৮) নামে এক এইচএসসি পরীক্ষার্থীর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (৩০ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যার দিকে উপজেলার দাঁতভাঙ্গা ইউনিয়নের ছাটকড়াইবাড়ী গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

 

শিরিনা আক্তার ছাটকড়াইবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা পোস্ট অফিসের এমএলএস সিরাজুল ইসলামের কন্যা। শিরিনা আক্তার চলতি বছর দাঁতভাঙ্গা স্কুল অ্যান্ড কলেজের মানবিক বিভাগ থেকে এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করত।

 

শিরিনের মা মেহেনিমা বেগম অভিযোগ করে বলেন, ২০১৯ সালে একই ইউনিয়নের উজানে ঝগড়ার গ্রামের বাসিন্দা গিয়াস উদ্দিনের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান মিঠুনের সঙ্গে আমার মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক হয়। পড়ে দু’পক্ষের সম্মতিতে শিরিনার সাথে মিঠুনের বিয়ে রেজিষ্ট্রি করা হয়। বিয়ে রেজিষ্ট্রির পড়ে মিঠুন সেনা বাহিনীতে সদস্য হিসেবে চাকরিতে যোগ দেয়। মিঠুনের চাকরি রক্ষার জন্য বিয়ের বিষয়টি গোপন রাখতে বলেন ওর পরিবার থেকে। কিন্তু গোপনে একই ইউনিয়নের উজান ঝগড়ার চর গ্রামে মিঠুন আরেকটি বিয়ে করে। বিষয়টি জানতে পেরে আমার মেয়ে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে বাদী হয়ে কুড়িগ্রাম আদালতে মিঠুনসহ ৩ জনের নামে একটি মামলা করেছে।

 

শিরিনার চাচা নইম উদ্দিন বলেন, কয়েকদিন আগের গভীর রাতে রৌমারী সরকারি কলেজের দপ্তরি শাজাহান আলীর ছেলে নাহিদ হাসান আমার ভাজতি শিরিনার ঘরে ঢুকলে তাকে আটক করা হয়। পড়ে নাহিদের বাবা শিরিনার সঙ্গে দু’দিনের মধ্যে বিয়ে দেবার আশ্বাস দিয়ে ছেলেকে নিয়ে যায়। দু’দিন পড়ে জানা যায় ইটালুকান্দা গ্রামে অন্য মেয়ের সঙ্গে নাহিদের পরিবার বিয়ে দেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে দাঁতভাঙ্গা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে নাহিদ ভাজতি শিরিনার সঙ্গে খারাপ দুর্ব্যবহার করে এবং লাঞ্ছিত করে। পরপর শিরিনা জীবনে এমন ঘটনায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে বলে ধারণা তার। শিরিনার জীবন ধ্বংসকারী মিঠুন এবং নাহিদের বিচার চান তারা। শিরিনা হাতের লেখা একটি চিঠিও পাওয়া গেছে।

 

ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান বলেন, শিরিনা নামের এক কলেজ ছাত্রী গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে। পড়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে রৌমারী থানা নেয়। তবে কি কারনে আত্মহত্যা করেছে তা আমার জানা নেই।

 

রৌমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোন্তাছের বিল্লাহ্ বাংলা টাইমসকে বলেন, শিরিনার মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুড়িগ্রাম মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ও নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেলে
তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট