1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২২, ০৫:৪১ অপরাহ্ন
নোটিশ ::
...Welcome To Our Website...

১৪ ছাত্রের চুল কেটে দেয়ায় আন্দোলন, ভিসির আশ্বাসে শান্ত শিক্ষার্থীরা

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৯৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

সিরাজগঞ্জের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর চুল কেটে দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। সেই সাথে পরীক্ষা ও ক্লাস বর্জন করে একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেয় শিক্ষার্থীরা।

 

পরে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের বিষয়টি জানতে পেরে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্রেজারার আব্দুল লতিফ ক্যাম্পাসে এসে শিক্ষার্থীদের বিচার দেওয়ার আশ্বাস দেন এবং হলে ফিরে যাওয়ার আহ্বান জানান।

 

পরে মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টার দিকে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন স্থগিত করে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনে গিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষকের অপসারণ চেয়ে একটি স্মারকলিপি প্রদান করে। এঘটনায় একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে বলে জানিয়েছেন ভিসি আব্দুল লতিফ।

 

মঙ্গলবার (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শাহজাদপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজে অবস্থিত রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যম্পাসের সকল পরীক্ষা ও ক্লাস বর্জন এবং একাডেমিক ও প্রশাসনিক ভবনে তালা ঝুলিয়ে দেয়ার ঘটনা ঘটে। এসময় ওই শিক্ষকের বহিষ্কার দাবী করে বিভিন্ন শ্লোগান দেয় শিক্ষার্থীরা।

 

ওই বিভাগের ছাত্র তানভীর ও জাহিদুল ইসলামের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ২৫ সেপ্টেম্বর দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থগিত হওয়া পরীক্ষার সময় সূচি নিয়ে ওই বিভাগের চেয়ারম্যান ও সহকারী প্রক্টর ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের সঙ্গে কয়েকজন শিক্ষার্থীর কথাকাটাকাটি হয়। এ সময় ওই শিক্ষার্থীদের চুল কেটে নির্দিষ্ট সময়ে পরীক্ষার হলে যেতে বলেন ওই শিক্ষক। পর দিন পরীক্ষার হলে প্রবেশের সময় ১৪ জন ছাত্র চুল কেটে না আসায় তাদের মাথার সামনের অংশের চুল কেটে দেন তিনি।

 

অপমান সহ্য করতে না পেরে ঐ দিনের পরীক্ষা শেষে নাজমুল হোসেন তুহিন (২৫) ছাত্রাবাসে গিয়ে তার রুমের দরজা বন্ধ করে বেশ কিছু ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মাহত্যার চেষ্টা করেন। বিষয়টি তার সহপাঠিরা টের পেয়ে দ্রুত তাকে শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসক তাকে এনায়েতপুর খাজা ইউনুস আলী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান।

 

এঘটনার পর সোমবার (২৭ সেপ্টেম্বর) দুপুরে শিক্ষার্থীরা প্রতিবাদে পরীক্ষা বর্জন করে। পরে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করার জন্য বিসিক বাসস্ট্যান্ড এলাকার শাহজাদপুর মহিলা ডিগ্রি কলেজে অবস্থিত রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস-১ এর গেটে জড়ো হলে ওই শিক্ষক তাদের পরীক্ষায় ফেল করিয়ে দেওয়ার ভয়ভীতি দেখিয়ে অকথ্য ভাষায় গালাগালি করে পরীক্ষার হলে যেতে বাধ্য করেন।

 

শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলাকালীন সময়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সংগীত বিভাগের চেয়ারম্যান রওশন আলম শিক্ষার্থীদের বলেন, আপনাদের দাবী-দাওয়া লিখিত আকারে জমা দিন। প্রক্টরিয়াল বর্ডি আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। শিক্ষক ও শিক্ষার্থী যেই অপরাধী হোক তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার সোহরাব আলী বাংলা টাইমসকে বলেন, আমরা নাজমুলের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করেছি। তার উন্নত চিকিৎসা চলছে। আশা করি সে ভাল হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসবে। এছাড়াও এই ঘটনার সঠিক ব্যবস্থাও নেয়া হবে।

 

শাহজাদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মনোয়ার হোসেন সুজন বলেন, ওই শিক্ষার্থীর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে এনায়েতপুর খাজা ইউনুস আলী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। সেখানে তিনি চিকিৎসাধিন রয়েছে।

 

এবিষয়ে কথা বলার জন্য বরীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ও বাংলাদেশ অধ্যায়ন বিভাগের চেয়ারম্যান সহকারী প্রক্টর ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি।

 

রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির অতিরিক্ত দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্রেজারার আব্দুল লতিফ বলেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের সময় আমি সেখানেই ছিলাম। পরে তাদের ডেকে নিয়ে এসে তাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বসে শান্তিশৃঙ্গলা বজায় রাখার আহবান জানিয়ে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিলে তারা শান্ত হয়ে ফিরে যায়।

 

তারা একটি স্মারকলিপি প্রদান করেছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমরা এখন তাদের স্মারকলিপির ওপরে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করবো। সেই তদন্ত কমিটির দেয়া রিপোর্ট অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট