1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
জনতা জুট মিলের আগুন সাড়ে ১৬ ঘন্টা পরে নিয়ন্ত্রনে - বাংলা টাইমস
রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৩:৩০ অপরাহ্ন

জনতা জুট মিলের আগুন সাড়ে ১৬ ঘন্টা পরে নিয়ন্ত্রনে

ফরিদপুর প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১০৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ফরিদপুরের বোয়ালমারীর সাতৈর ইউনিয়নের ডোবরা গ্রামে অবস্থিত জেলার বড় জুট মিল জনতা জুটমিলের আগুন সাড়ে ১৬ ঘণ্টা পর নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে এখন চলছে ড্যাম্পিং ডাউনের কাজ। আড়াই লাখ স্কোয়ার ফিটের এই কারখানা কাম গোডাউনে রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে আগুন লাগে।

 

আগুনে মিলের আনুমানিক ৫০-৬০ হাজার মণ পাট ছাড়াও দামি মেশিনারিজসহ একটি ইউনিট পুড়ে গেছে। আগুন নিয়ন্ত্রনে জেলার ফায়ার সার্ভিসের ৮টি ইউনিট সহ মাগুরার মোহম্মদপুরের একটি ইউনিট মিলে মোট ৯টি ইউনিট কাজ করে। তবে এতে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

 

মিল কর্তৃপক্ষ জানায়, রোববার দুপুর ২টার দিকে জুটমিলে আগুন ধরে। এরপর ১৬ ঘন্টা পরে সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৭টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।

 

মিল কর্মচারী বৈদ্যুতিক শাখার সহকারী শরিফুল ইসলাম জানান, মেশিন গরম হয়ে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হয়। এরপর মিলের ৩ নম্বর ইউনিটের ওপর থেকে আগুনের ধোঁয়া উঠতে দেখেন তারা। অল্প সময়ের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় মিলের ভেতর থেকে শ্রমিকরা দৌড়ে বের হয়ে যান।

 

জুটমিলের জ্যেষ্ঠ প্রশাসনিক কর্মকর্তা সৈয়দ নজরুল ইসলাম জানান, দুপুর ২টার দিকে মিলের ৩ নম্বর ফ্লোরে আগুন দেখে সাথে সাথেই ফায়ার সার্ভিসে ফোন দেন। ওই ফ্লোরের সংলগ্ন পাটের গুদাম থাকায় অল্প সময়ের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। তিনি আরও বলেন, মিলের ওই ইউনিটে প্রায় তিনশ শ্রমিক কাজ করছিল। আগুন লাগার পরে সবাই বেরিয়ে আসতে পেরেছে। তিনি আগুনে আনুমানিক ৫০-৬০ হাজার মণ পাট, দামি মেশিনারিজসহ একটি ইউনিট পুড়েছে বলে দাবি করেছেন।

 

ফরিদপুর ফায়ার সার্ভিস এর সহকারী পরিচালক মো. নজরুল ইসলাম বাংলা টাইমসকে জানান, আগুনের খবর পাওয়া মাত্র দ্রুত সেখানে ফায়ার সার্ভিসের কর্মিরা ছুটে যায়। আগুনে ভয়াবহতা দেখে আশপাশের জেলা ও উপজেলা থেকে মোট ৯টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। সন্ধ্যার পরে মূল আগুন নিয়ন্ত্রণে আসলেও পুরো আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয় সোমবার সকাল সাড়ে সাতটায়। এখন ড্যাম্পিং ডাউনের কাজ চলছে। তিনি বলেন মিলটি অনেক বড়। যেখানে আগুন লাগে সেখানে কারখানা ও পাটের গুদাম রয়েছে। ক্ষয়ক্ষতি নিরুপন এখন না করতে পারলেও বলতে হয় অনেক বড় ক্ষতি হয়েছে পাট ও মেশিনারিজের।

 

উল্লেখ্য জনতা জুট মিলটি পারেটক্স গ্রুপের একটি প্রতিষ্ঠান হিসেবে পারেটক্স জুট মিল হিসেবে যাত্রা শুরু করেছিলো। এরপর সম্প্রতি জুট মিলটি বিক্রি করে দেয়া হয় আকিজ গ্রুপের কাছে। আকিজ গ্রুপ এরপর নাম পরিবর্তন করে নাম দেয় জনতা জুট মিল। মিলটি জেলার সবচাইতে বড় জুট মিল হিসেবে পরিচিত।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট