1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
প্রথম দিনে স্কুলে উৎসব মুখোর পরিবেশ - বাংলা টাইমস
শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০৭:৩৫ পূর্বাহ্ন

প্রথম দিনে স্কুলে উৎসব মুখোর পরিবেশ

মো. সুলতান মাহমুদ, নবাবগঞ্জ (দিনাজপুর)
  • প্রকাশের সময় : রবিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৯৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
নবাবগঞ্জ সরকারি বহুমুখী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রবেশর পূর্বে শিক্ষার্থীদের হাত জীবানুমুক্ত করা হয়

করোনা মহামারির কারণে দেড় বছর বন্ধ থাকার পর রোববার (১২ সেপ্টেম্বর) থেকে সারা দেশের ন্যায় দিনাজপুরের নবাবগঞ্জেও খুলছে স্কুল-কলেজ মাদরাসাসহ সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এতদিন শিক্ষার্থীরা পড়াশোনা চালিয়েছে অনলাইনের মাধ্যমে।

 

বিদ্যালয় খোলার ১ম দিনে শিক্ষার্থীরা সহপাঠীদের সঙ্গে শ্রেণিকক্ষে দূরত্ব বজায় রেখে এক সঙ্গে ক্লাসে অংশ গ্রহণ করেছেন। শিক্ষার্থীদের কোলাহলে মুখরিত হয়ে উঠেছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তৈরী হয়েছে উৎসব মুখর পরিবেশ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলিতে করোনা সংক্রমণ রোধে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

 

সরেজমিনে নবাবগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, নবাবগঞ্জ ডিজিটাল শিশু শিক্ষা একাডেমী, বল্লভপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, নবাবগঞ্জ সরকারি বহুমুখী পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় গিয়ে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের ব্যাপক উচ্ছাস।

 

নবাবগঞ্জ ডিজিটাল শিশু শিক্ষা একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা মোঃ কবিরুল ইসলাম জানান- শিশুরা স্কুলে এসে যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে। আনন্দ ও উৎসব মুখর পরিবেশে পাঠদানে অংশ গ্রহন করেছে তারা।

 

নবাবগঞ্জ মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অভিভাবক মো. হাসিম উদ্দিন জানান, তার সন্তান করোনা কালে বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে। কিন্তু দীর্ঘ দেড় বছরেও বিদ্যালয়ে মুখ দেখেনি। আজ প্রথম দিন সে বিদ্যালয়ে এসেছে। এতে তার উচ্ছাসের শেষ নেই।

 

৬ষ্ট শ্রেণির শিক্ষার্থী তাসনিম তাবাসসু মিশু বলেন, স্কুল খুলবে শুনতে পারার পর থেকে তার মধ্যে একটি উত্তেজনা কাজ করছিল কখন সে স্কুলে যাবে। স্কুলে এসে তার খুব ভালো লেগেছে । শ্রেণি পাঠদানের পাশপাশি বন্ধু বান্ধবী ও স্যারদের সাথে দেখা সাক্ষাত হয়েছে। এতে সে খুবই আনন্দিত।

 

নবাবগঞ্জ সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দিলিপ কুমার সাহা বাংলা টাইমসকে জানান, করোনাভাইরাসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের মধ্যেও অনলাইনের মাধ্যমে পাঠদান করা হয়েছে। প্রায় দেড় বছর পর স্কুল খুলেছে এতে খুবই উচ্ছসিত শিক্ষার্থীরা। অনেক দিন পর পাঠদান করাতে পেরে শিক্ষকরাও আনন্দিত। সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী বিদ্যালয়ে সকল প্রকার স্বাস্থ্য বিধি মেনে পাঠদানের পরিবেশ সৃষ্টি করা হয়েছে।

 

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. রেজাউল করিম বাংলা টাইমসকে জানান, উপজেলা শিক্ষা অফিস থেকে স্কুল খোলার পুর্বেই স্কুল খোলা বিষয়ে সরকারি সকল নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে এবং নির্দেশনা মেনে সকল প্রতিষ্ঠানে পাঠদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শিক্ষা অফিস থেকে প্রতিষ্ঠানগুলি যথাযথ ভাবে নির্দেশনা পালন করা হচ্ছে কিনা তা মনিটরিং করা হচ্ছে।

 

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট