1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩১ পূর্বাহ্ন
নোটিশ ::
...Welcome To Our Website...

ভবানীপুরে মমতার বিরুদ্ধে লড়বেন প্রিয়াঙ্কা

বাংলা টাইমস ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪৫ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

ভবানীপুরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিজেপি প্রার্থী হলেন প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল৷ এ দিনই বিজেপি-র পক্ষ থেকে প্রিয়াঙ্কার নাম ঘোষণা করা হয়েছে৷ গত বিধানসভা নির্বাচনে এন্টালি কেন্দ্র থেকে বিজেপি-র প্রার্থী হয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা৷

 

ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী হিসেবে প্রিয়াঙ্কার নাম গত দু’ তিন দিন ধরেই হাওয়ায় ভাসছিল৷ কারণ বিজেপি-র অনেক তাবড় নেতাই ভবানীপুরে প্রার্থী হওয়ার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছিলেন৷ গত দু’ দিন ধরে ফেসবুকে কার্যত ভবানীপুরে উপনির্বাচনের জন্য নিজের সমর্থনে প্রচারও শুরু করে দিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা৷ যা নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের জবাব ছিল, ‘প্রতিপক্ষ যেখানে মুখ্যমন্ত্রী সেখানে যাকে তাকে প্রার্থী করা যায় না৷’ বিজেপি রাজ্য সভাপতি আরও দাবি করেন, প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালের নাম দিল্লির কাছে পাঠানোও হয়নি৷

 

যদিও শেষ পর্যন্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সেই প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালকেই প্রার্থী করল বিজেপি-র কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব৷ ফলে প্রশ্ন উঠছে, ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনের মতো ভবানীপুরের উপনির্বাচনেও কি প্রার্থী নিয়ে নিজেদের পছন্দ রাজ্য নেতাদের উপরে চাপিয়ে দিলেন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা?

 

২০১৪ সালে বাবুল সুপ্রিয়র আইনি পরামর্শদাতা প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে যোগ দিয়েছিলেন বিজেপি-তে। তিনি বিজেপি যুব মোর্চার গুরুত্বপূর্ণ পদের দায়িত্বেও ছিলেন। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে তাঁকে এন্টালি থেকে প্রার্থী করা হলেও সেখানে প্রায় ৫৮ হাজার ভোটে তৃণমূল প্রার্থী স্বর্ণকমল সাহার কাছে হেরে যান বিজেপি প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। যদি এন্টালিতে তাঁর লড়াকু মানসিকতা বিজেপি নেতৃত্বের প্রশংসা কুড়িয়েছিল৷

 

 

পেশায় আইনজীবী প্রিয়াঙ্কা ভোট-পরবর্তী সন্ত্রাসের ইস্যুতে লাগাতার আইনি লড়াই করেছেন বিজেপি-র হয়ে। নির্বাচন পরবর্তী সময়ে ঘরছাড়া বিজেপি কর্মীদের ঘরে ফিরিয়ে আনতেও উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নেন তিনি। মানবাধিকার কমিশন সহ অন্যান্য কেন্দ্রীয় সংস্থার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখেই কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন তিনি।

 

দিলীপ ঘোষ প্রথমে দাবি করেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কোনও বড় নামকেই প্রার্থী করবে বিজেপি৷ লড়াই হবে সমানে সমানে৷ কিন্তু বাস্তবে প্রার্থী খুঁজতে গিয়ে বিপাকে পড়ে বিজেপি৷ কারণ দলের সিনিয়র নেতা এবং পরিচিত মুখদের কেউই ভবানীপুরের মতো কঠিন আসনে মুখ্যমন্ত্রীর মুখোমুখি হতে রাজি ছিলেন না৷ শেষ পর্যন্ত কয়েকদিন ধরে খুঁজে শেষ পর্যন্ত ভবানীপুরে ‘যোগ্য’ প্রার্থী হিসেবে বিধানসভা নির্বাচনে পরাজিত প্রিয়াঙ্কাকেই খুঁজে পেল বিজেপি নেতৃত্ব৷ এখন এই সমস্ত প্রশ্নই ঘোরাফেরা করছে রাজ্য বিজেপি-র অন্দরে৷

 

যদিও বিজেপি-র অন্য একটি সূত্রের মতে, প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়ালকে ভবানীপুরে প্রার্থী করা নিয়ে দিলীপ ঘোষ এবং শুভেন্দু অধিকারী সহমত হওয়ার পরই তাঁর নাম ঘোষণা করেছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব৷

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট