1. [email protected] : admin :
  2. [email protected] : Editor :
বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে প্রচারণা - বাংলা টাইমস
সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০২:০৩ অপরাহ্ন

বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে শেষ হচ্ছে প্রচারণা

সিলেট ব্যুরো
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৩০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে

বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাত থেকেই শেষ হচ্ছে সিলেট ৩ সংসদীয় আসনের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা। তাই শেষ মুহূর্তে পথসভা গণ সংযোগসহ বিভিন্নভাবে প্রচারণার মাধ্যমে ভোটারদের মন জয় করতে প্রাণপন চেষ্টা তদবির চালিয়ে যাচ্ছেন প্রার্থী সমর্থকরা।

 

চষে বেড়াচ্ছেন সিলেট ৩ আসনের নির্বাচনী এলাকা বালাগঞ্জ, দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজার পাড়া-মহল্লা। জাতীয় পার্টি ও আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীদের পক্ষে প্রচারনায় অংশ নিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

 

শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) পদ্ধতিতে ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে প্রয়োজনীয় সকল প্রস্তুতি গ্রহন করেছে নির্বাচন কমিশন।

 

আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাত থেকে নির্বচনী মাঠে থাকছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। ভোটের পরে আগামী রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত তারা দায়িত্ব পালন করবেন।

 

জানা যায় আইন-শঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীগুলোকে একটি নির্দেশনা দিয়েছে নির্বাচন কমিশনের (ইসি)। নির্দেশনা অনুযায়ী প্রতিটি বাহিনী তাদের সদস্যদের মোতায়েন করবে।এবার সাধারণ ভোটকেন্দ্রে থাকবে পুলিশ, আনসার ও গ্রাম পুলিশের ১৭ থেকে ১৮ জন সদস্য। আর ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে থাকবে ১৮ থেকে ১৯ জন সদস্য। এদের মধ্যে পুলিশ আর অঙ্গিভূত আনসার সদস্যের কাছে অস্ত্র থাকবে। তারা সার্বক্ষণিক ভোটকেন্দ্রের নিরাপত্তা দেবেন।

 

পুলিশ, এপিবিএন ও ব্যাটালিয়ন আনসারের সমন্বয়ে গঠিত মোবাইল ফোর্স ২১টি, স্ট্রাইকিং ফোর্স ১২টি, র্যাবের ১২টি টিম ও ১২ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন থাকবে আগামী ২ থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। বিজিবির সঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন যেকোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা মোকাবিলায়। নির্বাচনী আচরণবিধি প্রতিপালন নিশ্চিতকরণ ও আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়োজিত রাখা হবে ২১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। সংঘটিত অপরাধের তাৎক্ষণিক বিচার কাজ সম্পন্ন করতে দায়িত্ব পালন করবেন ম্যাজিস্ট্রেটরা।

 

নির্বাচনে জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ আতিকুর রহমান আতিক, আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব, বাংলাদেশ কংগ্রেসের জুনায়েদ মোহাম্মদ মিয়া এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী শফি আহমেদ চৌধুরী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সিলেট-৩ আসটি ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নিয়ে গঠিত। ভোটার সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৩ লাখ।

 

এ আসনের সাবেক এমপি মাহমুদ উস সামাদ চৌধুরী গত ১১ মার্চ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। পরবর্তীতে জাতীয় সংসদ সচিবালয় আসনটি শূন্য ঘোষণা করলে ভোট গ্রহণের জন্য ১৪ জুলাই তারিখ নির্ধারণ করে ইসি। কিন্তু ওই দিন জাতীয় পার্টির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদের মৃত্যুবার্ষিকী হওয়ায় দলটি ভোট পেছানোর দাবি করে। সেই দাবি আমলে নিয়ে পরবর্তীতে ২৮ জুলাই ভোট গ্রহণের তারিখ পুনঃনির্ধারণ করে ইসি। কিন্তু একটি রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে উচ্চ আদালত ৫ আগস্ট পর্যন্ত ভোটের ওপর স্থগিতাদেশ দেন এবং ৭ আগস্টের মধ্যে ভোট করার নির্দেশনাও দেন। সেই নির্দেশনার আলোকে কমিশন ২৩ আগস্ট ভোটের নতুন তারিখ দেন আগামী ৪ সেপ্টেম্বর।

এই সংবাদটি শেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ
© প্রকাশক কর্তৃক সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায় সিসা হোস্ট